অনলাইন ডেক্স : Bangla24 News

নিজস্ব প্রতিবেদক :  মানবিকতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে সাভার থানার চামড়া শিল্পনগরী পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ। ‘পুলিশই জনতা, জনতাই পুলিশ’ স্লোগানকে লালন করে যেন শপথ নিয়েছে করোনা মোকাবিলায় মানুষের পাশে ছায়ার মত থাকবে সবসময়। তাই তো কিছু অসহায়, অসচ্ছল, শ্রমিক, দুস্থ, লেবার ফোন দিয়েই পেল খাদ্যসামগ্রী। রবিবার গভীর রাতে তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিয়েছে এ পুলিশ।

আরো পড়ুন>>>এবার তো ঈদের জামাতও করতে পারব না: প্রধানমন্ত্রী

করোনায় কর্মহীন হয়েছে এ উপজেলার কর্মজীবী পেশার লোকজন। অসহায়, অসচ্ছল, শ্রমিক, দুস্থ, লেবার, বাড়ির কাজের লোকজন কর্মহীন হয়ে পড়েছে। এমনকি কেউ কারও বাড়িতে কাজের লোকও নিচ্ছে না।

সোমবার একটি ফোন কলের মাধ্যমে সাভার থানার চামড়া শিল্পনগরী পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ জানতে পারে তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের হরিণধরা এলাকা একটি বাড়িতে ৬০ বছর বয়সের বিধবার বসবাস। নেই কোন সন্তান। মানুষের বাড়িতে ঝি এর কাজ করে কোনভাবে জীবন চালাতো। কিন্তু করোনাভাইরাস সংক্রমণের আশংকায় তার অবলম্বেনের কাজটিও বন্ধ রয়েছে। বাড়িতে নেই কোন খাবার। এ খবর পেয়েই গভীর রাতে চামড়া শিল্পনগরী পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশের তরফ থেকে তার জন্য খাবার নিয়ে ছুটে যান চামড়া শিল্পনগরী পুলিশ ফাঁড়ির এ এস আই হাসান সহ কয়েকজন পুলিশ সদস্য। তার হাতে তুলে দেন খাদ্যসামগ্রী। সোমবার এরকম ৫০টি পরিবারের হাতে ফাঁড়ির পুলিশ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন।

খাবার পেয়ে ওই বৃদ্ধা বিধবা জানান, আমি অবাক হয়েছি যখন পুলিশ এসে আমার বাড়িতে ডাক দিয়ে হাতে খাবার তুলে দিয়েছে। আমি চিন্তাই করতে পারেনি ফোনেই মিলবে খাবার।

আরোও দেখুন>>>সাভারের জয়নাবাড়ি এলাকা থেকে ৬৫ বছর বয়সী অজ্ঞাত পরিচয়ের এক নারীকে উদ্ধার

এ এস আই হাসান জানান, করোনাভাইরাস মোকাবিলায় অনেক লোক কর্মহীন হয়ে পড়েছে। অনেকের বাড়িতে খাবার না থাকলেও কাউকে বলতে পারছে না। এ রকম লোকজন ফোন করলেই আমরা তাদের বাড়িতে খাবার পৌঁছে দিচ্ছি। মঙ্গলবারও কিছু লোকের বাড়িতে খাবার নেই এমনটাই জানতে পেরেছেন আমাদের শিল্পনগরী ট্যানারি ফাঁড়ির অফিসার ইনচার্জ জাতিসংঘ শান্তি পদকপ্রাপ্ত বাংলাদেশ পুলিশের মানবিক পুলিশ কর্মকর্তা (পরিদর্শক) মো. জাহিদুল ইসলাম (বিপিএম,পিপিএম)।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here